বেয়াইকে ক্ষমা করলেন ট্রাম্প

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বেয়াইকে ক্ষমা করলেন ট্রাম্প
ছবি: আলজাজিরা

জামাতা জ্যারেড কুশনারের বাবা চার্লস কুশনারসহ কয়েকজনকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  

এদের মধ্যে ট্রাম্পের সাবেক প্রচার ব্যবস্থাপক পল ম্যানাফোর্ট, দীর্ঘদিনের উপদেষ্টা রোজার স্টোনও রয়েছেন।  ক্ষমতা ছাড়ার আগমুহূর্তে এ নিয়ে দুদিনে ২৬ জনকে ক্ষমা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। 

আলজাজিরার প্রতিবেদন বলছে, ২০১৬ সালের নির্বাচনী প্রচারণার সময় রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ নিয়ে ম্যানাফোর্টকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল।  

গত বছর কর ফাঁকি ও ব্যাংকের টাকা জালিয়াতির দায়ে ম্যানাফোর্টকে ৪৭ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন আদালত।

আর তদন্তে মিথ্যা সাক্ষী, বিচারে বাধা দেয়া ও সাক্ষীদের প্রভাবিত করার দায়ে গত বছরের নভেম্বরে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন ট্রাম্পের উপদেষ্টা রোজার স্টোন। তাকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিল।
 
সাক্ষীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও নির্বাচনী প্রচারে অবৈধভাবে অর্থদানসহ কর ফাঁকির দায়ে ২০০৪ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা জ্যারেড কুশনারের বাবা চার্লস কুশনারকে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন মার্কিন আদালত। 

রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী চার্লস ১৬টি কর ফাঁকির অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।

বিদায়ের আগে এ নিয়ে ৪৮ ঘণ্টার ব্যবধানে ট্রাম্প ২৬ জনকে সাধারণ ক্ষমা করে তাদের দণ্ড মওকুফ করেছেন। কাউকে আবার ভবিষ্যৎ বিচার থেকেও দায়মুক্তি দিয়েছেন। 

মার্কিন সংবিধানে প্রেসিডেন্টকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা এবং কোনো অপরাধের দায়মুক্তি দেয়ার অবাধ ক্ষমতা দেয়া আছে। 

বিচার বিভাগে এমন সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার জন্য আলাদা বিভাগ রয়েছে। সেখান থেকেই এসবের সুপারিশ করা হয়ে থাকে। 

২০ জানুয়ারি হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে ট্রাম্প আরও অনেককে ক্ষমা করবেন বলেই অনুমান করা হচ্ছে। 

যুক্তরাষ্ট্রে বিদায়ী প্রেসিডেন্টরা সাধারণত কার্যালয় ছাড়ার আগে কম গুরুতর অপরাধে দোষী সাব্যস্ত অনেককে ক্ষমা করে থাকেন। তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প অনেকটা ঢালাওভাবে ক্ষমা করছেন।  
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০