ইমরানের নেতৃত্বে ভুল পথে পাকিস্তান

নওয়াজ-মরিয়মের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা ষ জারদারির বিরুদ্ধে আরও দুই দুর্নীতির মামলা
 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ক্রিকেটার থেকে ক্যারিশমেটিক রাজনীতিক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বে পাকিস্তান ভুল পথে এগোচ্ছে বলে মনে করছে দেশটির বেশির ভাগ নাগরিক।  কমপক্ষে ৮০ শতাংশ মানুষই তাদের দেশ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

সম্প্রতি এক জরিপ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। কনজিউমার কনফিডেন্স সার্ভে ইন পাকিস্তান নামের ওই জরিপে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের পাঁচজন নাগরিকের মধ্যে চারজনই মনে করেন, গত বছর থেকেই দেশ ভুল পথে যাচ্ছে।

এদিকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ও তার কন্যা মরিয়ম নওয়াজের বিরুদ্ধে এবার রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা দেয়া হয়েছে।

দুর্নীতির অভিযোগে আরও দুটি মামলা করা হয়েছে সাবেক প্রেসিডেন্ট ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) কো-চেয়ারপারসন আসিফ আলি জারদারির বিরুদ্ধে। আলজাজিরার।

রোববার পাকিস্তানের নাগরিকদের ওপর করা এ জরিপের রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে। পাকিস্তানের রাজধানী শহর ও এর আশপাশের প্রতি ১০০০ জনের ওপর সমীক্ষা চালানো হয়। ৫০ শতাংশ পুরুষ ও ৫০ শতাংশ নারীকে এজন্য বেছে নেয়া হয় যাদের বয়স ১৮ বছরের ওপরে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে এই সমীক্ষা চালায় সংস্থাটি।

ওই সমীক্ষা অনুযায়ী, প্রতি চারজন পাকিস্তানি নাগরিকের মধ্যে তিনজনই দেশের শাসনব্যবস্থা ও সরকারের ওপর অসন্তুষ্ট। তারা মনে করেন সঠিক পথে যাচ্ছে না দেশ এবং এক্ষেত্রে পরিবর্তন দরকার। প্রতি পাঁচজনের মধ্যে চারজন পাক নাগরিক মনে করেন আগামী ছয় মাসে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে।

প্রতি চারজনের মধ্যে তিনজন পাক নাগরিকের ধারণা দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা একেবারে তলানিতে ঠেকেছে। প্রতি পাঁচজনের মধ্যে দু’জন পাক নাগরিক মনে করে ব্যক্তিগতভাবে অর্থনৈতিক দিক থেকে পিছিয়ে রয়েছে পাকিস্তান।

পাকিস্তানে বর্তমানে সবচেয়ে দুশ্চিন্তার বিষয় হচ্ছে কর্মসংস্থানের অভাব। এর মধ্যে রয়েছে অত্যধিক মূল্যবৃদ্ধি ও দারিদ্র্য। পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ, তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজসহ তার দলের অন্তত ৪০ জন নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করেছে দেশটির পুলিশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন