বর্ষ বিদায় জোকস
jugantor
বর্ষ বিদায় জোকস

  গ্রন্থনা : রাফিয়া আক্তার  

২৭ ডিসেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চল্লিশ বছর একটানা সংসার করে বিল্টুর দাদা আর দাদির একদিন উপলব্ধি হল জীবনটা খুব একঘেঁয়ে হয়ে গেছে। দুজনের বয়স এরই মধ্যে আশি পেরিয়ে গেছে। জীবনের এই একঘেয়েমি দূর করতে তারা সিদ্ধান্ত নিলেন নতুন বছর সবকিছু আবার নতুন করে শুরু করবেন। তরুণ বয়সে যেভাবে প্রেম করতেন ঠিক সেভাবে বছরের প্রথম দিন তারা ডেটিংয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন।

বিল্টুর দাদা নতুন বছরের প্রথম দিন সেজেগুজে ফুল নিয়ে পার্কে হাজির হলেন। কিন্তু সারাদিন অপেক্ষা করেও লাভ হল না। তার স্ত্রী তার সঙ্গে দেখা করতে এলেন না।

বিল্টুর দাদা রেগেমেগে বাড়িতে এসে দেখলেন তার স্ত্রী ঘরে চুপচাপ বসে আছেন। রেগে গিয়ে তিনি স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলেন, ‘পার্কে আসলে না কেন তুমি?’ স্ত্রী লজ্জিত গলায় বললেন, ‘আম্মা বের হতে দেয়নি!’

বর্ষ বিদায় জোকস

 গ্রন্থনা : রাফিয়া আক্তার 
২৭ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চল্লিশ বছর একটানা সংসার করে বিল্টুর দাদা আর দাদির একদিন উপলব্ধি হল জীবনটা খুব একঘেঁয়ে হয়ে গেছে। দুজনের বয়স এরই মধ্যে আশি পেরিয়ে গেছে। জীবনের এই একঘেয়েমি দূর করতে তারা সিদ্ধান্ত নিলেন নতুন বছর সবকিছু আবার নতুন করে শুরু করবেন। তরুণ বয়সে যেভাবে প্রেম করতেন ঠিক সেভাবে বছরের প্রথম দিন তারা ডেটিংয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন।

বিল্টুর দাদা নতুন বছরের প্রথম দিন সেজেগুজে ফুল নিয়ে পার্কে হাজির হলেন। কিন্তু সারাদিন অপেক্ষা করেও লাভ হল না। তার স্ত্রী তার সঙ্গে দেখা করতে এলেন না।

বিল্টুর দাদা রেগেমেগে বাড়িতে এসে দেখলেন তার স্ত্রী ঘরে চুপচাপ বসে আছেন। রেগে গিয়ে তিনি স্ত্রীর কাছে জানতে চাইলেন, ‘পার্কে আসলে না কেন তুমি?’ স্ত্রী লজ্জিত গলায় বললেন, ‘আম্মা বের হতে দেয়নি!’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন