হ্যালো...

রাজনীতি নিয়ে আমার কোনো উচ্চাভিলাষ নেই

জনপ্রিয় উপস্থাপক ও নির্মাতা আনজাম মাসুদ সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক উপকমিটির সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এ নতুন দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি নতুন অনুষ্ঠান নিয়ে দর্শকের সামনে হাজির হওয়ার পরিকল্পনা করছেন তিনি। এসব প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি
 সোহেল আহসান 
২৮ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

* বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক উপকমিটির সদস্য নির্বাচিত হলেন। নতুন দায়িত্ব পালন নিয়ে আপনার ভাবনা কী?

** আমি এক সময় ছাত্ররাজনীতি করতাম। ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলাম। ছাত্রাবস্থাতেই আমি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে প্রবেশ করি। উপস্থাপনা এবং ইভেন্টের কাজ নিয়েই ব্যস্ত হয়ে পড়ি। কিন্তু আমি আমার রাজনৈতিক আদর্শ থেকে চুল পরিমাণও বিচ্যুত হইনি। বিভিন্ন ফোরামে আমি দলের হয়ে কাজ করার চেষ্টা করি। যেহেতু এবার কেন্দ্রীয় কমিটিতে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি, তাই স্বভাবতই আমার ওপর একটি দায়িত্ব বর্তায়। আমি সাংস্কৃতিক জগতে দলের জন্য কাজ করতে চাই। এমপি-মন্ত্রী হওয়ার দিকে আমার কোনো ঝোঁক নেই এবং কখনও ছিল না। মোদ্দাকথা, রাজনীতি নিয়ে আমার কোনো উচ্চাভিলাষ নেই।

* উপস্থাপনায়ও দীর্ঘদিন দেখা যাচ্ছে না। নতুন অনুষ্ঠান নিয়ে আসবেন বলেছেন। সেটার অগ্রগতি কতদূর?

** আমি এখন পুরোপুরি ইভেন্ট রিলেটেড হয়ে গেছি। কিন্তু ভক্ত, দর্শক ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের একটি চাপ আছে পর্দায় থাকার জন্য। একটি অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করেছি। করোনাভাইরাসের জন্য সেটি পিছিয়ে গেছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আমি পর্দায় ফিরব; কিন্তু অনুষ্ঠানের ধরন আগের মতো হবে না।

* বিজ্ঞাপন নির্মাণেও সফল আপনি। এ ধরনের কাজ করার ইচ্ছা আছে কি?

** যদি এ ধরনের কোনো কাজ চলে আসে, তাহলে হয়তো করতে পারি। কিন্তু আমার চিন্তায় এখন ইভেন্টের কাজ বেশি। এছাড়া নতুন দায়িত্ব পালনেও অনেক সময় ব্যয় হবে। তাই বিজ্ঞাপন নির্মাণ নিয়ে খুব বেশি আগ্রহ এখন নেই।

* আপনি আরও দুটি সংগঠনের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। এগুলোর কার্যক্রম কেমন চলছে?

** আমাদের পরিচালিত স্বাধীনতা সাংস্কৃতিক পরিষদ একটি সংগঠন মূলত যারা অওয়ামী লীগ করেন, ছাত্রলীগ, যুবলীগ করেছেন এবং বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মী ও সংগঠক তাদের নিয়েই। এটি মোটেও স্টার বেইজড নয়। মূলত মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষকে নিয়েই সংগঠনটি পরিচালিত হচ্ছে। আরেকটি সংগঠনের নাম ‘প্রেজেন্টারস প্লাটফর্ম অব বাংলাদেশ’। বাংলাদেশের মঞ্চ ও টেলিভিশনের যত উপস্থাপক আছেন, তাদের নিয়েই পরিচালিত হয় এ সংগঠনটি। করোনার কারণে গত প্রায় এক বছর ধরে সামনাসামনি দেখা হচ্ছে কম; কিন্তু যোগাযোগ অব্যাহত আছে সবার সঙ্গে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন