হ্যালো...

অভিনয় জীবন নিয়ে আমি সন্তুষ্ট

এক সময়ের তুমুল ব্যস্ত ও জনপ্রিয় চিত্রনায়ক আমিন খান। এখনও কাজ করছেন। তবে সীমিত। সিনেমার পাশাপাশি নাটকেও দেখা যায় তাকে। করোনাকালের আগে একটি ছবির কাজ শেষ করেছিলেন। এটি এখন মুক্তির অপেক্ষায় আছে। সমসাময়িক ব্যস্ততাসহ অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি।
 সোহেল আহসান 
২২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

* করোনাকাল কীভাবে কাটছে আপনার?

** আমি কাজে ব্যস্ত আছি, তবে তা অভিনয়ে নয়, অফিসিয়াল। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করছি। লকডাউনের শুরুর দিকে কিছুদিন বাসায় ছিলাম। তবে গত কয়েক মাস থেকে নিয়মিত অফিস করছি। যেভাবেই হোক কাজের মধ্যে আছি, ভালো আছি।

* অভিনয়ে দেখা যাচ্ছে না। এটা কি করোনার কারণে?

** হ্যাঁ। অনেক কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। নাটকের সঙ্গে একাধিক ছবির কাজের প্রস্তাবও এসেছে। কিন্তু আমি ফিরিয়ে দিয়েছি। আমার কাছে কাজের চেয়েও জীবনের মূল্য অনেক বেশি। তাছাড়া আমার কারণে পরিবারের অন্য সদস্যরা করোনায় আক্রান্ত হোক তা আমি চাই না। তাই আপাতত অভিনয় করছি না। করোনার ভ্যাকসিন আসার পর পরিস্থিতি যদি স্বাভাবিক হয় তাহলে কাজে ফিরব। আর করোনা পরিস্থিতি যদি এমনই থাকে তাহলে সহসা কাজে ফিরব না।

* আপনার অভিনীত ‘সাহসী যোদ্ধা’ নামের একটি ছবি মুক্তির অপেক্ষায় আছে। এটি নিয়ে আপনার আশাবাদ কী?

** এ ছবিতে আমি ব্যতিক্রমী একটি চরিত্রে অভিনয় করেছি। ছবির শুরুতে আমাকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আন্ডারওয়ার্ল্ডে কাজ করি আমি। এ কাজের জন্য আমার স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকে না। কিন্তু ছবির শেষ দিকে গিয়ে আমাকে আবার ইতিবাচকভাবে দেখানো হবে। এ ছবির শুটিং করোনাকালের আগেই শেষ করেছিলাম। কিছুদিন আগে এর ডাবিংও শেষ করেছি। আশা করছি এটি দর্শকের ভালো লাগবে।

* কয়েক বছর আগে একটি ছবি প্রযোজনায় দেখা গিয়েছিল আপনাকে। এ মাধ্যমে আর বিনিয়োগ করলেন না কেন?

** আসলে প্রযোজক হিসেবে কাজ শুরুর আগে এক ধরনের ভাবনা কিংবা আশাবাদ ছিল। কিন্তু প্রযোজনায় কাজ শুরুর পর পুরো বিষয়টিই অন্যরকম মনে হয়েছে। এ নিয়ে যে উৎসাহ ছিল কাজ শুরুর আগে, তা পরে আর ছিল না। মোটকথা আমাকে দিয়ে প্রযোজনা হবে না। তাই এ নিয়ে কাজ করার আর কোনো ইচ্ছা নেই।

* পরিচালনায় দেখা যাবে কখনও?

** সে রকম একটি পরিকল্পনা আমার মাথায় ঘুরছে অনেকদিন ধরেই। তবে করোনার কারণে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হয়তো বিলম্ব হবে। আল্লাহ বাঁচিয়ে রাখলে অবশ্যই এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব। এর জন্য যেসব প্রস্তুতি নেয়া দরকার সেগুলো রপ্ত করছি।

* ক্যারিয়ারের এ পর্যায়ে এসে অভিনয় জীবন নিয়ে কোনো হতাশা কিংবা না পাওয়ার কষ্ট আছে কি?

** না। এসবের কিছুই নেই আমার। আমি আমার অভিনয় জীবন নিয়ে সন্তুষ্ট। অন্য কোনো কাজ কিংবা চাকরি করলে হয়তো গতানুগতিক একটি বাঁধাধরা জীবনযাপন করতে হতো। অভিনয়ে আসার পর সেগুলো হচ্ছে না। নতুন নতুন চরিত্র ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করছি। অভিনয় জীবনকে আমি ভালোভাবেই উপভোগ করেছি। বাকি জীবন এ পরিচয়েই কাটিয়ে দিতে চাই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন