হ্যালো...

মানহীন ছবিতে অভিনয় করতে চাই না

অভিনেতা হিসেবেই বেশি জনপ্রিয় জাহিদ হাসান। তবে পরিচালনাতেও নিয়মিত। সদ্যঘোষিত ২০১৯ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে সেরা খল অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার জিতেছেন। এ পুরস্কার প্রাপ্তি এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে আজকের ‘হ্যালো...’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি
 সোহেল আহসান 
১২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

* করোনার প্রকোপের মধ্যেও শুটিং করছেন। কতটুকু সাবধানতা অবলম্বন করা হচ্ছে শুটিং স্পটে?

** করোনার মধ্যে আমি যেসব নাটকে অভিনয় করেছি, প্রত্যেকটিতেই করোনা প্রতিরোধের যথেষ্ট ব্যবস্থা ছিল। তাছাড়া অন্য সহকর্মীরাও নিরাপত্তা নিয়ে সচেতন ছিলেন। তাই এখন পর্যন্ত আল্লাহর রহমতে সুস্থই আছি। যেসব কাজ হাতে আছে, সেগুলোর জন্যও নির্মাতাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা শুটিংয়ের পরিবেশ নিরাপদ রাখার বিষয়ে সচেতন।

* গত রোজার ঈদের পর থেকে যেসব নাটকে অভিনয় করেছেন, সেগুলোর নির্মাণ ও গল্প কেমন ছিল?

** আমি গতানুগতিক গল্পে অভিনয় করি না। প্রচুর কাজের প্রস্তাব পাচ্ছি। সব কাজই যে করতে হবে, এমনটা নয়। যেগুলো বাতিল করছি, সেগুলোর নির্মাণ কিংবা গল্পে আগ্রহ পাই না। এছাড়া করোনার কারণেও কাজ করছি খুব কম। এখন করোনার প্রকোপ আবার বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই একটু ধীরে সুস্থেই কাজ করতে চাই। বেঁচে থাকলে অনেক কাজই করা যাবে।

* খল অভিনেতা হিসেবে আবারও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছেন। কেমন লাগছে?

** যে কোনো পুরস্কার কিংবা স্বীকৃতি মনে আনন্দ তৈরি করে। আমার ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। তৃতীয়বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছি। শুভাকাক্সক্ষী, সহকর্মী ও ভক্তরা শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন এখনও। আমি খল চরিত্রে খুব কম অভিনয় করেছি। তবে এ কাজের জন্যই আবারও পুরস্কার পাচ্ছি। অন্য ধরনের চরিত্রের জন্যই ভবিষ্যতে পুরস্কার পাওয়ার প্রত্যাশা করি।

* আপনার পরিচালনায় দীর্ঘ ধারাবাহিক নাটক ‘হুলুস্থুল টিভি’ প্রচার হচ্ছে। দর্শক সাড়া কেমন পাচ্ছেন?

** এরই মধ্যে নাটকটির কয়েকটি পর্ব প্রচার হয়েছে। প্রত্যাশা অনুযায়ীই দর্শকের সাড়া পাচ্ছি। খুব কাছের মানুষ ও সহকর্মীরা ইতিবাচক মন্তব্য করছেন। নাটকটির নির্মাণ কাজ শুরু করেছিলাম দেড় বছর আগে। শিগগিরই সিরাজগঞ্জে এর পরবর্তী শুটিং শুরু করব। এ নাটকের গল্প দর্শকের ভালো লাগার মতো করেই তৈরি করা হয়েছে। আশা করছি, দর্শকরা সঙ্গেই থাকবেন।

* বিটিভিতে প্রথমবার ধারাবাহিক নাটক পরিচালনা করছেন। এটি নিয়ে আপনার ব্যক্তিগত অর্জন কী?

** ‘পিছুটান’ নামে এ নাটকটি নাট্যকার বেশ যত্ন নিয়েই তৈরি করেছেন। আমাদের জন্য এ নাটকটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে আমি প্রথমবার বিটিভির প্রযোজনায় দীর্ঘ ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ করছি। এখন পর্যন্ত দর্শকের সাড়া পাচ্ছি ভালোই। এতে একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আমিও অভিনয় করছি। বেশ গোছানো কাজ এটি।

* নতুন ছবিতে দীর্ঘদিন কাজ করছেন না, কেন?

** আসলে অভিনয় জীবনের এ পর্যায়ে এসে মানহীন ছবিতে অভিনয় করতে চাই না। তাই বিলম্ব হচ্ছে। তবে নিয়মিতই অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি। হয়তো এ প্রক্রিয়ার মধ্যেই পছন্দের গল্প ও চরিত্র পেয়ে যাব। তখন এ মাধ্যমে কাজ শুরু করতে পারব।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন