‘ত্রিশ বছর যেসব সরকার দেশ পরিচালনা করেছে তারা মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ’

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৮ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘ত্রিশ বছর যেসব সরকার দেশ পরিচালনা করেছে তারা মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ’
ফাইল ছবি

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, জাতীয় পার্টি কোনো ষড়যন্ত্রে বিশ্বাস করে না।  জাতীয় পার্টি কখনোই কোনো ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিল না। দেশের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র হলে তা প্রতিহতের রাজনীতিতে জাতীয় পার্টি সব সময় অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। 

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে গণফোরাম থেকে দুই শতাধিক নেতাকর্মীর জাতীয় পার্টিতে যোগদান উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, পল্লীবন্ধু ক্ষমতা হস্থান্তরের পর থেকে ত্রিশ বছর যে সরকারগুলো দেশ পরিচালনা করেছে তারা মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। দেশের মানুষ দুর্নীতি ও দুঃশাসন থেকে মুক্তি পেতে বিকল্প খুঁজছে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বিপক্ষে জাতীয় পার্টি হচ্ছে জনসাধারণের একমাত্র বিকল্প শক্তি। দুর্নীতির কারণে দেশের ডাক্তারি সার্টিফিকেট বিদেশে গ্রহণ করছে না। 

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি প্রতিরোধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন, হঠাৎ করে কেউ কেউ গ্রেফতার হচ্ছে। কিন্তু কিছুদিন পর আবার দুর্নীতিবাজরা কোট-টাই পরে ঘুরে বেড়ায়।  জিএম কাদের প্রশ্ন রেখে বলেন, মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার অভিযানে বিচারবহির্ভূতভাবে কয়েকশ' মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে, কিন্তু মাদকের প্রসার কি কমেছে? কেউ দাবি করতে পারছে না দেশে মাদকের বিস্তার রোধ হয়েছে। 

যোগদান অনুষ্ঠানে গাজীপুর জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক এমএম নিয়াজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব মোশাররফ হোসেনের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন- পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গাজীপুর জেলা সভাপতি মো. আজম খান ও রফিক মেম্বার। 

উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ, আলমগীর সিকদার লোটন, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ড. নুরুল আজহার শামীম, মাহমুদুর রহমান মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ শফি রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হেলাল উদ্দিন, এনাম জয়নাল আবেদিন, হুমায়ুন খান, মাখন সরকার, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য সুলতান মাহমুদ, এমএ রাজ্জাক খান, জহিরুল ইসলাম মিন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসহাক ভূঁইয়া, মিজানুর রহমান মিরু, যুগ্ম সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য নুরুল হক নুরু, মাহমুদুল আলম, সমরেশ মণ্ডল মানিক, কেন্দ্রীয় নেতা ফারুক শেঠ, শফিকুল ইসলাম, জাকির হোসেন, জিয়াউর রহমান বিপুল, অ্যাডভোকেট মনোয়ার, মো. হারুন অর রশীদ এবং জহিরুল ইসলাম মিন্টু।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন