নিউ ইংল্যান্ড আ’লীগের ভার্চুয়াল সভায় বক্তারা

দেশে গেলে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দেখে বিস্মিত হই

 কৌশলী ইমা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে 
২৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি ভাস্কর্য প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের নেতারা। রোববার বিজয় দিবসের এক ভার্চুয়াল সভায় নিউ ইংল্যান্ড আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এ দাবি জানান।

সভায় বক্তারা বলেন, মৌলবাদের উত্থানের মাধ্যমে বাংলাদেশের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টিসহ স্বাধীনতার ইতিহাস ও ঐতিহ্য ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। তারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙ্গার দৃষ্টতা দেখানোর জন্য হেফাজতের আড়ালে বিএনপি-জামায়াতের এজেন্ডা বাস্তবায়নে নিয়োজিত মৌলবাদীদের বিষদাঁত ভেঙে দেয়ার জন্য জোরালো দাবি জানিয়ে সর্বত্র তাদের প্রতিহত করার ঘোষণা দেন।

বক্তারা আরও বলেন, যখনই দেশে যাই প্রতিনিয়ত দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দেখে বিস্মৃত হই। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে আরও সমুজ্জ্বল করেছে। নেতারা দেশের ক্রমাগত উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদানে গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং দেশে শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই বলে উল্লেখ করেন। 

তারা শেখ হাসিনার দীর্ঘ জীবন কামনা করেন এবং দেশের ও জনগণের নিরবচ্ছিন্ন কল্যাণে তার হাতকে আরও শক্তিশালী করার আহ্বান জানান।

চলচ্চিত্র পরিচালক ও আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল হক বাচ্চুর সভাপতিত্বে ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুহাস বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় বক্তব্য দেন- সংগঠনের সাবেক সভাপতি ওসমান গণি, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব নিউ ইংল্যান্ডের সাবেক সভাপতি শাহীন খান, নিউ ইংল্যান্ড ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি বিশ্বজিৎ সাহা, বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম,আব্দুল ওয়াহিদী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজ খান আনন্দ, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিশা রহমান, সংঙ্গীত শিল্পী ও সাংস্কৃতিক সংগঠক মহিতোষ পাল তাপস, মোরশেদা খাতুন, আওয়ামী লীগ নেতা নূর হোসাইন, মোহাম্মদ লোকমান, জাহিদুল ইসলাম আপু, টিপু চৌধুরী, অনুপম দেব, আব্দুল আহাদ, বিএম আজাদ, নজরুল কাদেরী, শহিদুল ইসলাম রনি, বিশ্ব সনাতনী সভার রবিন দাস, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা এমএ জলিল, যুবলীগ নেতা সিরাজুম মুনির, সৈকত খান, মোহাম্মদ শহীদ, সবুজ বড়ুয়া, দীপন বড়ুয়া ও ছাত্রলীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন