ফিলিস্তিনি শিশুকে জন্মদিনে গুলি করে হত্যা করল ইসরাইলি সেনারা

লাশ নিয়ে পশ্চিমতীরে বিক্ষোভ
 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পশ্চিমতীরে গত শুক্রবার ইসরাইলি বাহিনীর অবৈধ উচ্ছে অভিযানের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছিলেন ফিলিস্তিনিরা। এ সময় নির্বিচারে তাদের হামলা চালান ইসরাইলি সেনারা।

ইসরাইল-ফিলিস্তিনিদের এ সংঘাত দেখতে গিয়ে ছিল পশ্চিমতীরের ১৩ বছরের শিশু আলি আয়মান নাসর আবু আলিয়া। এদিন ছিল তার জন্মদিন। খবর আরব নিউজ ও ডয়েচে ভেলের।

পাড়ার মোড়ে ইসরাইলের নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে ফিলিস্তিনের বিক্ষোভকারীদের সংঘাত দেখতে গিয়েছিল যোগ দিয়েছিল সেই বিক্ষোভে। সেখানেই ইসরাইলি সেনারা ঠাণ্ডা মাথায় তাকে গুলি করে। এই নিয়ে গত এক বছরে পাঁচজন শিশুকে গুলি করে মারল ইসরাইল।

শনিবার জানাজার আগে ফিলিস্তিনি ওই শিশুর মরদেহ নিয়ে উত্তর রামাল্লায় হাজার হাজার মানুষ ইসরাইলের ওই বর্বরতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করে। তারা নির্বিচারে গুলি করে শিশু হত্যার ঘটনায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নির্লিপ্ততার নিন্দা জানান।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, পশ্চিমতীরের রামাল্লা এলাকার মুঘাইর গ্রামে ফিলিস্তিনি শিশুটির পেটে একাধিক গুলি করেন ইসরাইলি সেনারা।  

আলির মৃত্যুর পর স্থানীয় মানুষেরা জানিয়েছেন, প্রায় প্রতি সপ্তাহেই ওই এলাকায় ইসরাইলি নিরাপত্তরক্ষীদের সঙ্গে এলাকার মানুষের সংঘাত হয়। তবে তাদের দাবি, শুক্রবারের বিক্ষোভ ছিল শান্তিপূর্ণ।

আলি আবু আলিয়ার পরিবার ধার্মিক। কোনো বছরই ছেলের জন্মদিন পালন করেননি তার বাবা-মা। কিন্তু এ বছর তার বাবা-মা ঠিক করেছিলেন ছেলের জন্মদিন পালন করবেন।

মা কেকও বানিয়েছিলেন। গত শুক্রবার বাড়িতে যখন জন্মদিনের প্রস্তুতি চলছে, তখনই পাড়ার মোড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। প্রায় প্রতি সপ্তাহেই এমন বিক্ষোভ চলে। এদিন বিক্ষোভ শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর আলি তা দেখতে যায়। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই নিরাপত্তারক্ষীরা বিক্ষোভকারীদের দিকে গুলি চালাতে শুরু করে। আলি তলপেটে গুলি লাগে।

বিক্ষোভকারীরাই আলিকে নিয়ে যান স্থানীয় হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আলির মৃত্যু হয়। শোকের ছায়া নেমে আসে গোটা এলাকায়। আলির মা খবর পেয়ে অচেতন হয়ে পড়েন। আলির বাবা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এর পর তাদের জীবনের আর কোনো মানে থাকল না।

ফিলিস্তিনে দীর্ঘদিন ধরে শিশু-কিশোরদের অধিকার নিয়ে কাজ করছে ডিফেন্স ফর চিলড্রেনস ইনট্যারন্যাশনাল প্যালেস্টাইন। তাদের বক্তব্য, গত এক বছরে এই নিয়ে পাঁচজন শিশুকে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরাইলের নিরাপত্তারক্ষীরা। তার আগের বছরে সংখ্যা ছিল আরও বেশি।

১৯৬৭ সাল থেকে পশ্চিমতীরে এ ধরনের মানবতাবিরোধী অপরাধ চালিয়ে আসছেন বর্বর ইসরাইলি সেনারা।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ