থাইল্যান্ডে বিক্ষোভকারীদের হুমকি প্রধানমন্ত্রীর

 অনলাইন ডেস্ক 
১৯ নভেম্বর ২০২০, ১০:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
থাইল্যান্ডে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ
থাইল্যান্ডে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ।ফাইল ছবি

গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের ঠেকাতে তাদের বিরুদ্ধে সব ধরনের আইন ও ধারা ব্যবহারের হুমকি দিয়েছেন থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান-ওচা। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তিনি এই হুশিয়ারি দেন। 

প্রধানমন্ত্রীর এমন হুমকির পর অনেকেই আশঙ্কা করছেন, দেশটির কঠোর রাজতন্ত্র সুরক্ষা আইন বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োগ করা হতে পারে। তবে আগে ওই আইন ব্যবহার না করার প্রতিশ্র“তি দিয়েছিলেন থাই প্রধানমন্ত্রী। 

বিবৃতিতে থাই প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় আরও সহিংসতা বৃদ্ধির ঝুঁকি রয়েছে। এগুলো যদি বিবেচনায় নেয়া না হয় তাহলে এগুলো আমাদের দেশ এবং প্রিয় রাজতন্ত্রের ক্ষতি করতে পারে। তিনি বলেন, সরকার তাদের কার্যক্রম জোরালো করবে এবং আইনভঙ্গ করা বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে সব আইন ও ধারা ব্যবহার করবে।

তবে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ১১২ নম্বর ধারা ব্যবহার করা হবে কিনা তা প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতিতে স্পষ্ট করা হয়নি। ওই ধারায় রাজতন্ত্রের সমালোচনা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই ধারায় ভঙ্গকারীদের ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে দেশটিতে।

রাজতন্ত্রের ক্ষমতা কমানো এবং প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে কয়েক মাস ধরে থাইল্যান্ডে বিক্ষোভ চলছে। থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রাউত চান-ওচার পদত্যাগ চাইছেন বিরোধী দলের নেতারা। বিক্ষোভে অংশ নেয়ার জন্য অনেকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার বিক্ষোভকারীদের চাহিদা মোতাবেক সংবিধান সংশোধন করার জন্য বেশ কয়েকটি প্রস্তাব নিয়ে বিতর্ক করার কথা ভাবছিলেন আইনপ্রণেতারা। 

সংবিধান পরিবর্তনের জন্য আইনপ্রণেতাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী এদিন পার্লামেন্টের বাইরে জড়ো হন। কিন্তু সেখানে বিক্ষোভকারীদের কাঁটাতারের বেড়ায় আটকে রাখা হয়। পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেছেন, সংরক্ষিত এলাকা ভাঙার চেষ্টা চালালে পুলিশ জলকামান ব্যবহারে বাধ্য হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন