‘প্রবাসে বাণিজ্যিক রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা’

 কাজী শামীম, কাতার থেকে 
১০ নভেম্বর ২০২০, ১০:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কাতারের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক আগের চেয়ে অনেক উন্নত উল্লেখ করে কাতরে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, প্রবাসে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের মাধ্যমে বন্ধু প্রতীম এ সম্পর্ককে আরও জোরদার করেছে কাতারে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা। 

তিনি বলেন, প্রবাসী ব্যবসায়ীদেরকে নিয়ে আমরা অনেক গর্বিত। প্রবাসের মাটিতে তারা আমাদের ব্যবসায়ী রাষ্ট্রদূত। কাতারের শিল্পাঞ্চল (সানাইয়া) বাংলাদেশি মালিকানাধীন গোল্ডেন মার্বেল কোম্পানি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন শেষে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এ কথা বলেন।

এছাড়াও রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, কাতারে বাংলাদেশি জনশক্তি আমাদের জন্য একটি বড় দিক। পাশাপাশি বাংলাদেশি যারা কাতারে ব্যবসায় করছে, তারা যে ভালো করছে তা আমরা আরও বেশি করে তুলে ধরব। এতে করে কাতারের সঙ্গে আমাদের সম্পর্কটা আরও দৃঢ় হবে। 

এছাড়াও তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশেও বিনিয়োগ করতে হবে, প্রবাসে যেমন বিনিয়োগ করেছেন তেমনিভাবে বাংলাদেশেও বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। ভবিষ্যতে যারা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী তারা যেন সহজে, কোনো প্রকার বাধাবিঘ্ন ছাড়াই  বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে পারেন সে লক্ষে আমরা কাজ করে যাব। 

এছাড়া বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করে বাংলাদেশে প্রবাসী বিনিয়োগকারী ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা করব। 
কাতারে মার্বেল পাথরের একজন বড় বাংলাদেশি ব্যবসায়ী মো. জালাল আহমেদের প্রতিষ্ঠানে আসতে পেরে আজ আমি অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছি। 

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন, বাংলাদেশ  দূতাবাসের পলিটিকাল ও ইকোনমিক অ্যাফেয়ার্স কাউন্সিলর মাহবুর রহমান। 

সোমবার বিকেলে রাষ্ট্রদূত গোল্ডেন মার্বেল কোম্পানি প্রতিষ্ঠানে এসে পৌঁছালে প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী সিআইপি আলহাজ জালাল আহমেদ ও কাতারি স্পন্সর আতিক আল কাদেরি ফুলেল শুভেচছা জানান।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কাতারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ মানিক হোসেন, খায়রুল আলম সাগর, কাতারস্থ ফরিদগঞ্জ এসোসিয়েশনের প্রধান সমন্বয়কারী জাহাঙ্গীর আলম ভূইয়া, মানিক পাটোয়ারী, জিএস মামুন, গাজী সেলিমসহ গোল্ডেন মার্বেল কোম্পানির কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন