স্বামী হত্যার প্রতিশোধ নিতেই ফিলিপাইনে আত্মঘাতী হামলা ২ নারীর

 অনলাইন ডেস্ক 
২৭ আগস্ট ২০২০, ১১:২৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিপাইনে দক্ষিণাঞ্চলীয় সুলুপ্রদেশে দুটি ভয়াবহ হামলায় আট সেনা ও এক পুলিশসহ ১৭ জন নিহতের ঘটনায় দুই মুসলিম নারীর সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে বলে দাবি করছে দেশটির সরকার।

হামলার দুদিন পর দেশটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নাহা ও ইন্ডা নায় নামে দুই মুসলিম বিধবা নারী ওই আত্মঘাতী বোমা হামলা চালান। এতে ১৭ জনের প্রাণহানিসহ আরও ৭৫ জন গুরুতর আহত হন। খবর আরব নিউজের।

দেশটির বাসিলানপ্রদেশ এবং সুলুপ্রদেশে এ বছর নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে নাহার স্বামী আবু তালেব ও ইন্ডা নায়ার স্বামী তালহা জুমসা নিহত হন।

স্বামী হারিয়ে তারা দুজন পরে তাউই-তাউই প্রদেশে চলে যান। সেখানেই দুই বিধবা নারী স্বামী হত্যার প্রতিশোধ নিতে আত্মঘাতী হামলার ছক কষে বলে জানান দেশটির সেনাপ্রধান লে. জেনারেল সিরিলিতো সবেজানা।

সোমবার স্থানীয় সময় দুপুরে সুলু দ্বীপে আত্মঘাতী ওই হামলার পর আল কায়েদার সমর্থক আবু সায়াফ এ হামলা চালায় বলে দাবি করেছিল দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। 

প্রথম হামলাটি সেনাবাহিনীর একটি ট্রাকের কাছে মোটরসাইকেল বোঝাই ইম্প্রুভাইজড বিস্ফোরকের (আইইডি) মাধ্যমে চালানো হয়। এতে ঘটনাস্থলেই পাঁচ সেনাসহ ৯ জন নিহত হন। আহত হন অর্ধশতাধিক। পরে হাসপাতালে সেনা সদস্যসহ আরও সাতজন মারা যান।

দ্বিতীয়টি বিস্ফোরণে আক্রান্ত হন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। এতে ঘটনাস্থলে একজন নিহত ও ১৭ জন আহত হন।

এর আগে ২০১৯ সালে একটি ক্যাথলিক গির্জার ভেতরে হামলার ঘটনায় ২০ জন নিহত হন। তার কাছেই সোমবার ওই হামলার ঘটনা ঘটে।

ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চল মিন্দানাওয়ের স্বাধীনতার দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে সশস্ত্র লড়াই করে আসছে স্থানীয় সশস্ত্র সংগঠন আবু সায়াফ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন