বাসের জানালা দিয়ে লাফিয়ে সম্ভ্রম বাঁচাল ছাত্রী, চালক-হেলপারের বিরুদ্ধে মামলা

 দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৭ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চালক-হেলপারসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন জানালা দিয়ে লাফিয়ে সম্ভ্রম বাঁচানো সেই কলেজছাত্রীর পিতা। শনিবার রাতে দিরাই থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়।


এদিকে রোববার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল আহাদ ও পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান।

পরিদর্শন শেষে থানা কম্পাউন্ডে পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, চলন্ত বাসে ছাত্রী ধর্ষণচেষ্টা একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। এ বিষয়ে মামলা দায়ের হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আশা করছি দ্রুতই অভিযুক্তদের গ্রেফতারে আমরা সক্ষম হব।

এর আগে শনিবার বিকালে সিলেটের লামাকাজি বোনের বাড়ি থেকে বাসে একা দিরাইয়ে নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন ওই কলেজছাত্রী। দিরাই মদনপুর সড়কের সুজানগর এলাকায় ফাঁকা বাসে চালক-হেলপার ওই কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। সম্ভ্রম বাঁচাতে বাসের জানালা দিয়ে লাফ দিয়ে পড়ে গুরুতর আহত হন তিনি।

গ্রামের লোকজন মেয়েটিকে সড়কের পাশ থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। মাথায় গুরুতর আঘাত থাকায় মেয়েটিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় দিরাই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। শনিবার মধ্যরাতে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে তাকে ভর্তি করেন স্বজনরা।

দিরাই পৌরসভার কাউন্সিলর সোয়েল চৌধুরী বলেন, বাজার থেকে বাড়িতে ফিরছিলাম, এ সময় মেয়েটিকে সড়কের পাশে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখি। কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে বেশ কিছু লোক জড়ো হন। আমরা মেয়েটির কাছ থেকে জানতে পারি বাসের ড্রাইভার-হেলপার মিলে তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করলে সে জানালা দিয়ে লাফ দেয়।

মেয়েটির পিতা জানান, ডাক্তারের পরামর্শে রোববার সকালে আমার মেয়ের সিটিস্ক্যান করা হয়েছে। যারা তার সঙ্গে এমন করেছে আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন