মহিমাগঞ্জে অর্ধদিবস হরতাল পালিত

 গাইবান্ধা প্রতিনিধি 
২৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাইবান্ধার কৃষিভিত্তিক একমাত্র ভারিশিল্প কারখানা উপজেলার মহিমাগঞ্জের রংপুর চিনিকলসহ রাষ্ট্রায়ত্ত ৬টি চিনিকলে আখ মাড়াই বন্ধ রাখার সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বৃহস্পতিবার মহিমাগঞ্জে স্বত:স্ফূর্তভাবে অর্ধদিবস হরতাল পালিত হয়েছে।

হরতাল চলাকালে কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। সকাল থেকে এখানকার ব্যাংক-বীমা, দোকাটপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। গোবিন্দগঞ্জ-মহিমাগঞ্জ সড়কের বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন হরতাল সমর্থকরা। এ কারণে ছোট-বড় কোনো প্রকার যানবাহনই চলাচল করেনি।

সান্তাহার থেকে ছেড়ে আসা বুড়িমারীগামী ৭১৪নং আপ করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে মহিমাগঞ্জ স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে ঢোকার আগেই বিক্ষোভকারীরা আটকে দেয়। একই কারণে পার্শ্ববর্তী বোনারপাড়া স্টেশনে সান্তাহারগামী দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস ট্রেনটিও আটকা পড়ে। গোবিন্দগঞ্জের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজির হোসেন, গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম মেহেদী হাসান অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজ করেন। এছাড়া হরতালের সময় মহিমাগঞ্জ রেলস্টেশনে রেলওয়ে পুলিশ ও রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য সতর্ক অবস্থায় দায়িত্ব পালন করেন।

শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষীরা রেলপথ অবরোধ চলাকালে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বক্তব্য রাখেন-গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি এমএ মতিন মোল্লা,রংপুর চিনিকল আখচাষী সমিতির সভাপতি জিন্নাত আলী প্রধান,শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আবু সুফিয়ান সুজা,সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল,সহ-সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন ফটু প্রমুখ। সমাবেশ শেষ হলে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে ট্রেনটি মহিমাগঞ্জ ত্যাগ করে।

এদিকে মহিমাগঞ্জ স্টেশনে রেলপথ অবরুদ্ধ থাকায় পার্শ্ববর্তী বোনারপাড়া স্টেশনে সান্তাহারগামী আন্ত:নগর দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস ট্রেনটিও এক ঘণ্টা আটকে থাকে। বেলা ১টার পর হরতাল কর্মসূচি শেষ করা হয়।

উল্লেখ্য,গত শনিবার আখচাষী,শ্রমিক-কর্মচারী,বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সুধী সমাজের যৌথ সংবাদ সম্মেলন থেকে এ হরতাল কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন