আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার সেই পৌর মেয়র মোশাররফ

 দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২০ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার হলেন বিতর্কিত সেই পৌর মেয়র মোশাররফ মিয়া। দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে দিরাই পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নেয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশারফ মিয়াকে দলের প্রাথমিক সদস্যপদসহ সব পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন শফিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দায়িত্বশীল এক নেতা জানান, জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মোশাররফ মিয়াকে শোকজ নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। মোশাররফ মিয়া ওই শোকজ নোটিশের জবাবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ রায়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করেছেন। মোশাররফ মিয়া দাবি করেছেন, ‘দলের নেতাকর্মীদের চাপে তিনি প্রার্থী হয়েছেন।’

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন বলেন, মোশারফ মিয়া বহিষ্কার হয়েছেন; এটা নিশ্চিত। তিনি শোকজ নোটিশের যে জবাব দিয়েছেন তাতে আমরা সন্তুষ্ট নই।

এনামুল কবির ইমন বলেন, আমরা সোমবার আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন শফিককে নিয়ে দিরাই যাব। সেখানেই বহিষ্কারের বিষয়টি দলীয় নেতাকর্মীদের জানানো হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি মতিউর রহমান জানান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়ে গেছে, সোমবার দলীয় নেতাকর্মীদের জানানো হবে।

মেয়র মোশাররফ মিয়াকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজ-উদ দৌলা বলেন, মেয়র মোশাররফ মিয়া নানা অনিয়ম দুর্নীতি ও বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের কারণে দলের গ্রহণযোগ্যতা হারিয়ে ফেলেছেন। দলের বাইরে গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার পর থেকে তৃণমূল নেতাকর্মীসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা মোশাররফ মিয়ার সঙ্গ ত্যাগ করেছেন। সাধারণ মানুষ নৌকার পক্ষে, উনি নৌকার কোনো ক্ষতি করতে পারবেন না।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৮ ডিসেম্বর দিরাই পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে ৮ জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সুনামগঞ্জের দিরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোশাররফ মিয়ার ২০১৮ সালে দেয়া এক বিতর্কিত বক্তব্যে নিজ দলে ও প্রতিপক্ষ দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে মোশাররফ মিয়ার ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য নিয়ে উপজেলাজুড়ে তোলপাড় ও সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। দিরাই উপজেলা সদরে এক সমাবেশে মেয়র মোশাররফ মিয়া হুমকি দিয়ে বলেন, ‘নৌকার পক্ষে সব ভোট কেন্দ্র দখল করা হবে এবং এতে বিএনপি নেতাকর্মীরা বাধা দিলে তাদের চোখ উপড়ে ফেলা হবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন