ইউপি সদস্যকে হত্যাচেষ্টার সাত দিন পর মামলা নিল পুলিশ

 মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি 
০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পিরোজপুর
পিরোজপুর

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার সাবেক ইউপি সদস্য মুছা হায়দারকে (৫২) হত্যাচেষ্টা ঘটনার সাত দিন পর মামলা নিয়েছে থানা পুলিশ। মুছা হায়দার উপজেলার পূর্ব সেনের টিকিকাটা গ্রামের মৃত আ . সত্তার মৃধার ছেলে। মারাত্মক আহত ওই ইউপি সদস্য বর্তমানে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মুছা হায়দারের সাথে উপজেলার পশ্চিম সেনের টিকিকাটা গ্রামের মৃত মজিবুর রহমান হাওলাদারের ছেলে এনায়েতুর রহমান মিলন ও টিপু মৃধা এবং তাদের মামি মলিনা বেগমের জমিসংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল।

গত ২৬ নভেম্বর সকালে মুছা হায়দারের পৈতৃক ওই জমিতে প্রতিপক্ষরা মাটি কাটতে আসে। এ সময় তিনি ঘটনাটি ওসিকে অবহিত করলে পুলিশ সরেজমিন গিয়ে মাটি কাটা বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিকালে মুছা হায়দারকে পুরাতন সেটেলমেন্ট অফিসের সামনে একা পেয়ে এনায়েতুর রহমান মিলন ও টিপু মৃধা এবং অজ্ঞাত ৫-৬ জন দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। 

গুরুতর আহত মুছা হায়দার অভিযোগ করেন, হত্যাচেষ্টার এ ঘটনায় ওই রাতেই থানায় অভিযোগ দিলেও পুলিশ মামলা রেকর্ড না করে কালক্ষেপণ করে। পরে এলাকাবাসীর বিক্ষোভের আশঙ্কায় বৃহস্পতিবার রাতে মামলা নিয়েছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার ওসি মাসুদুজ্জামান বলেন, তদন্ত করার জন্য মামলা নিতে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে।  আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন